মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

Aloava News24 | আলোআভা নিউজ ২৪

পোল্যান্ডে পড়ল রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র, নিহত ২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৫২, ১৬ নভেম্বর ২০২২

পোল্যান্ডে পড়ল রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র, নিহত ২

ছবি সংগৃহীত

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে আবার মিসাইল হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এতে শহরের কেন্দ্রস্থলের কাছাকাছি বিভিন্ন আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত এবং কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছেন।

এদিকে কিয়েভে রুশ ক্ষেপনাস্ত্র হামলার মধ্যেই প্রথমবারে মতো ইউক্রেন সীমান্তবর্তী ন্যাটো সদস্য পোল্যান্ডের একটি গ্রামে বিস্ফোরণে দুজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন দেশটির অগ্নিনির্বাপক কর্মীরা। রাশিয়ার ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে বিস্ফোরণ ঘটেছেসংবাদমাধ্যমের এমন অসমর্থিত প্রতিবেদন তদন্ত করে দেখছে ন্যাটো মিত্ররা।

একজন ন্যাটো কর্মকর্তা বলেছেন, বিস্ফোরণের খবর জোট খতিয়ে দেখছে এবং পোল্যান্ডের সঙ্গে নিবিড়ভাবে সমন্বয় রক্ষা করে যাচ্ছে। বিস্ফোরণের বিষয়ে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ দুদার সঙ্গে কথা বলেছেন জানিয়ে টুইট করেছেন ন্যাটোপ্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ।

ন্যাটোপ্রধান আরও বলেন, ‘নিহতদের প্রতি আমি সমবেদনা জানাচ্ছি। ন্যাটো পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং মিত্রদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে পরামর্শ করছে। সব তথ্যের সত্যতা প্রতিষ্ঠিত হওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের মেয়র ভিটালি ক্লিচকো জানান, রুশ ক্ষেপনাস্ত্র হামলায় শহরের পেচেরস্ক এলাকার তিনটি ভবনে আঘাত হানা হয়েছে। কিয়েভে বেশ কয়েকটি রুশ ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে ভূপাতিত করা হয়েছে এবং উদ্ধারকারী দল কাজ করেছ। এসব হামলার পর সারাদেশে বিমান হামলার সতর্কতা জারি করা রয়েছে।

আরেকজন ইউক্রেনীয় কর্মকর্তার পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায় একটি পাঁচতলা আবাসিক ভবনে আগুন জ্বলছে।

এই হামলা এমন এক সময়ে হলো যখন ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন থেকে বিশ্ব নেতারা ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রুশ অভিযানের নিন্দা জানিয়েছেন। সম্মেলনে যোগদান শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বিমানে চড়ে বালি ছেড়ে যাওয়ার পরপরই রাশিয়া এই হামলা চালায়।

বালি শীর্ষ সম্মেলনে যাননি রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন। তার জায়গায় যান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ।

রাজধানী কিয়েভ ছাড়াও মিকোলায়েভ ওডেসাসহ অন্য শহরেরও কয়েকদফা মিসাইল আক্রমণ চালিয়েছে রাশিয়া। খারকিভ লাভিভ শহরে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। লাভিভের কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ চলে গেছে।

হামলার পর ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি জানিয়েছেন, সারা দেশে রাশিয়া প্রায় ৮৫টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। আরও ২০টি আঘাত হানতে পারে বলে হুঁশিয়ার করেন তিনি।

চেরনিহিভের গভর্নর ভিয়াচেস্লাভ চাউস মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে সতর্ক করে বলেছেন, ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে ইউক্রেনে রাশিয়ার অভিযানের তীব্র নিন্দা করে সেখানে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার বা ব্যবহারের হুমকিকে সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

তবে প্রেসিডেন্ট পুতিনের পরিবর্তে সম্মেলনে যোগদানকারী রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেছেন, পশ্চিমা দেশগুলো জি-২০ জোটের এই ইস্তাহারকেরাজনীতিকীকরণকরার চেষ্টা করেছে।

বালিতে এই সম্মেলনে বিশ্ব অর্থনীতি এবং বৈশ্বিক খাদ্য সরবরাহের ওপর ইউক্রেন যুদ্ধের যে প্রভাব পড়েছে, তা ছিল আলোচনার অন্যতম প্রধান বিষয়। এর যে খসড়া ঘোষণায় বলা হয়, জি টুয়েন্টির অধিকাংশ সদস্যই ইউক্রেনে রুশ অভিযানের তীব্র নিন্দা করছে এবং সেখানে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার বা ব্যবহারের হুমকিকে সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য বলে বর্ণনা করা হয়।

প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি সম্মেলনে ভিডিও লিংকের মাধ্যমে ভাষণ দিয়েছেন। তাতে তিনি বলেন, ইউক্রেনেরর বিরুদ্ধে মস্কোর যুদ্ধ বন্ধ করা সম্ভব এবং তা দ্রুতই করতে হবে।

তিনি জোর দিয়ে বলেন, ইউক্রেনের সব ভূখণ্ড থেকে রাশিয়াকে সেনা প্রত্যাহার করতে হবে এবং ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকও রাশিয়ার এই যুদ্ধের তীব্র নিন্দা করেছেন এবং রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভকে সরাসরি বলেছেন তার দেশের উচিত ইউক্রেন ত্যাগ করা।

তবে, মি. লাভরভ বালিতে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইউক্রেন কথা বলতে অস্বীকার করছে এবং অবাস্তব দাবিদাওয়া তুলছে। এর ফলে যুদ্ধ বন্ধ নিয়ে ঐকমত্যে পৌঁছানো কঠিন হয়ে উঠছে। সূত্র: বিবিসি

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়