রোববার ২৩ জুন ২০২৪, আষাঢ় ৯ ১৪৩১

Aloava News24 | আলোআভা নিউজ ২৪

১১ কোটি টাকায় বিক্রি মেসি-বার্সার সেই ন্যাপকিন পেপার

ক্রীড়া ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৫৯, ১৮ মে ২০২৪

আপডেট: ১৫:০৩, ১৮ মে ২০২৪

১১ কোটি টাকায় বিক্রি মেসি-বার্সার সেই ন্যাপকিন পেপার

সংগৃহীত

বার্সেলোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির চুক্তির বিখ্যাত সেই ন্যাপকিন পেপার নিলামে বিক্রি হয়েছে।শুক্রবার (১৮ মে) ন্যাপকিন পেপারটি নিলামে ৯ লাখ ৬৫ হাজার ডলারে (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকা) বিক্রি হয়েছে।

অন্যদের মতো লিওনেল মেসির চুক্তি সাদা কাগজে হলেও বার্সেলোনা-মেসির চুক্তির কাগজটা সাধারণ পেপারের ছিল না। সেটা ছিল ন্যাপকিন পেপারের।

ঐতিহাসিক চুক্তির এই ন্যাপকিন পেপারটি গত ফেব্রুয়ারিতে নিলামে তোলা হয়েছিল। ২৪ বছর আগে করা সেই চুক্তির পেপারটি নিলামে তুলেছিল ব্রিটিশ অকশন হাউস বোনাহামস। গত মার্চের নিলামে এর ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছিল বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা।

নিলামকারী প্রতিষ্ঠান বোনহামস গত শুক্রবার জানিয়েছে, ন্যাপকিন পেপারটি নিলামে বাংলাদেশি মুদ্রায় ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে। বার্সার সঙ্গে ২০০০ সালে সেই চুক্তি হয়েছিল মেসির। তখন ১৩ বছরের বালক ছিলেন বর্তমানে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। সেপ্টেম্বরে বার্সেলোনায় ট্রায়াল দিতে গিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন তিনি। ঘটনার ৩ মাস পরে তাঁর সঙ্গে চুক্তি করে বার্সা

চুক্তিতে লেখা ছিল, ‘২০০০ সালের ১৪ ডিসেম্বর, বার্সেলোনায় মেসার্স মিনগেলা, হোরাশিও আর বার্সার ক্রীড়া পরিচালক কার্লোস রেক্সাসের উপস্থিতিতে পূর্ণ দায়িত্বের সঙ্গে নির্দিষ্ট অঙ্কের ভিত্তিতে লিওনেল মেসিকে সই করানোর ব্যাপারে একমত হওয়া গেছে।’ ন্যাপকিনটি এত দিন নিজের কাছে রেখে দিয়েছিলেন সে সময়কার মেসির এজেন্ট হোরাশিও গ্যাগিওলি।

বার্সার সিনিয়র দলের হয়ে প্রায় দুই দশক কাটিয়েছেন মেসি। এ সময় বার্সার হয়ে ৭৭৮ ম্যাচ গোল করেছেন ৬৭২টি। জিতেছেন ৪টি চ্যাম্পিয়নস লিগ। আর ১০টি লা লিগাসহ ছিল আরও অনেক ট্রফি। ২০২১ সালে কাতালান ক্লাব ছেড়ে দুই মৌসুম পিএসজিতে কাটিয়েছেন। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ইন্টার মায়ামির হয়ে মাঠ মাতাচ্ছেন আটবারের ব্যালন ডি অর জয়ী

এনপি/আর 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়