সোমবার ২০ মে ২০২৪, জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪৩১

Aloava News24 | আলোআভা নিউজ ২৪

অবন্তিকার আত্মহত্যা

জবির সাবেক সহকারী প্রক্টর জামিনে মুক্ত, ক্ষুদ্ধ পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:২০, ৯ মে ২০২৪

আপডেট: ১৬:২৪, ৯ মে ২০২৪

জবির সাবেক সহকারী প্রক্টর জামিনে মুক্ত, ক্ষুদ্ধ পরিবার

ছবি: সংগ্রহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) আইন বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী ফাইরুজ সাদাফ অবন্তিকার আত্মহত্যার ঘটনায় গ্রেফতার বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক সহকারী প্রক্টর ও ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক দ্বীন ইসলাম জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। বুধবার (৮ মে) বিকেলে কুমিল্লা কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান। তবে জামিনে মুক্তি পাননি মামলার ১ নম্বর আসামি অবন্তিকার সহপাঠী রায়হান সিদ্দিক ওরফে আম্মান।

কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আদালতের কাগজপত্র পেয়ে আজ বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে জামিন দেওয়া হয়।

সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামের জামিন পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে অবন্তিকার মা তাহমিনা শবনম গণমাধ্যমকে বলেন, অবন্তিকার আত্মহত্যার জন্য দ্বীন ইসলাম দায়ী, তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ। এছাড়াও তার সথে আরও যে ১৪ জন অভিযুক্ত তাদেরকে জিজ্ঞাবাদ করা হয়নি, তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হয়নি, পুলিশ রিপোর্ট দেওয়া হয়নি, তার মধ্যে সে (দ্বীন ইসলাম) কীভাবে জামিন পায়?

প্রসঙ্গত, গত ১৫ মার্চ রাত সাড়ে ৯টা থেকে রাত ১০টার মধ্যে কুমিল্লা নগরের দমকল পুকুরের উত্তরপাড়ে অবস্থিত অরণি বাসার দ্বিতীয় তলায় ফাইরুজ সাদাফ অবন্তিকা আত্মহত্যা করেন। এ ঘটনায় অবন্তিকার মা তাহমিনা বেগম কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানায় ১৬ মার্চ রাতে অবন্তিকার সহপাঠী রায়হান সিদ্দিক ওরফে আম্মান ও সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে আসামি করে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেন।

এই মামলায় তাদের ১৭ মার্চ গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানা-পুলিশের কাছে তাঁদের হস্তান্তর করা হয়। ১৮ মার্চ আদালতে হাজির করা হলে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

 

এনপি/আর

 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়