মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

Aloava News24 | আলোআভা নিউজ ২৪

যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন আজ, শেষ মুহূর্তেও চলছে বাইডেন-ট্রাম্প প্রচারণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:০২, ৮ নভেম্বর ২০২২

আপডেট: ১৭:০৪, ৮ নভেম্বর ২০২২

যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন আজ, শেষ মুহূর্তেও চলছে বাইডেন-ট্রাম্প প্রচারণা

ছবি সংগৃহীত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন আজ। ক্ষমতার ভারসাম্য বজায় রাখতে লাখ লাখ আমেরিকান ভোট দেবেন তাদের পছন্দের প্রার্থীদের। মধ্যবর্তী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শেষ মুহূর্তে ভোটারদের চাঙা করতে চূড়ান্ত প্রচারাভিযানও চালিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার মেয়াদ যখন দুই বছর হয় তখনই মধ্যবর্তী নির্বাচনের আয়োজন করা হয়। এই নির্বাচনের ফলে কংগ্রেসে সিদ্ধান্ত হবে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে আইনসভা ও গভর্নরের কার্যালয় কে নিয়ন্ত্রণ করবে।

যুক্তরাষ্ট্রে এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে বাইডেন ও ট্রাম্পের ব্যালট নেই। এটি শুধু কংগ্রেসের নির্বাচন। যেটির দুটি অংশের মধ্যে একটি হলো হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ এবং অপরটি সিনেট। সংসদীয় এই ভোট প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর হয়। প্রেসিডেন্টের ৪ বছরের মেয়াদের মাঝামাঝি সময়ে হয় বলে এটিকে মধ্যবর্তী মেয়াদের নির্বাচন বলা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারে জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন ৫৩৫ জন আইন প্রণেতা, যারা কংগ্রেস সদস্য হিসেবে পরিচিত।

সিনেট হচ্ছে কংগ্রেসের ১০০ সদস্যের উচ্চকক্ষ। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গরাজ্য, তাদের আকার যাই হোক, দুজন করে সিনেট সদস্য নির্বাচিত করে। সিনেটররা নির্বাচিত হন ছয় বছর মেয়াদের জন্য। প্রতি দুই বছর পর পর সিনেটের এক-তৃতীয়াংশ আসনের জন্য নির্বাচন হয়। এবার ৩৫ জন সিনেটর নির্বাচিত হবেন।

হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস বা প্রতিনিধি পরিষদে সদস্য আছেন ৪৩৫ জন। প্রত্যেক সদস্য তাদের অঙ্গরাজ্যের একটি নির্দিষ্ট ডিস্ট্রিক্ট বা জেলার প্রতিনিধিত্ব করেন। তারা দুই বছর মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হন। কাজেই এবার যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রতিনিধি পরিষদে সব আসনের জন্যই নির্বাচন হবে।

গত দুই বছর ধরে ডেমোক্রেটরা রিপ্রেজেনটেটিভ হাউজ ও সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রেখে কাজ করছে। যেটি প্রেসিডেন্ট বাইডেনের জন্য যে কোনো আইন পাসে সহায়ক হয়েছে।

তবে ইতিহাস সাক্ষ্য দেয়, সাধারণত যে দল হোয়াইট হাউসে থাকে, তারা মধ্যবর্তী নির্বাচনে খারাপ ফল করে। কাজেই রিপাবলিকানরা তাদের আসন সংখ্যা বাড়াতে পারে এ রকম ইঙ্গিত রয়েছে।

তাছাড়া এই মুহূর্তে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের জনপ্রিয়তা কম, তার প্রতি সমর্থন গত আগস্ট মাস থেকেই ৫০ শতাংশের নিচে আটকে আছে। ফলে ডেমোক্র্যাট প্রার্থীদের সমর্থনে ভাটা পড়তে পারে।

এদিকে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রিপাবলিকান প্রার্থীদের প্রচারণায় অংশ নিয়ে ওহাইওতে একটি সমাবেশ করেন। রিপাবলিকান প্রার্থীদের সমর্থন করার জন্য ভোটারদের আহ্বান জানান তিনি। সঙ্গে তিনি ২০২৪ সালের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথাও জানান।

সূত্র: আল জাজিরা, বিবিসি

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়