বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪, শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

Aloava News24 | আলোআভা নিউজ ২৪

আবেদ আলী সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান

আলোআভা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৬, ১০ জুলাই ২০২৪

আপডেট: ১১:৪৯, ১০ জুলাই ২০২৪

আবেদ আলী সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান

ছবি: ইন্টারনেট

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সাবেক চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেছেন, সারা দেশে আলোচিত সৈয়দ আবেদ আলী আমার গাড়ি চালক ছিলেন না। আবু বকর সিদ্দিক নামে একজন আমার গাড়ি চালক ছিলেন। আবেদ আলীকে আমি চিনি না, তাকে কখনো দেখিনি।

সম্প্রতি পিএসসির গাড়ি চালকের প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয় নিয়ে সারা দেশে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। এ আলোচনার সূত্রে মঙ্গলবার (৯ জুলাই) পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক  একটি গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।

সুনামগঞ্জের সন্তান ড. মোহাম্মদ সাদিক পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমানে সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

গাড়ি চালক আবেদ আলী প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি পিএসসির চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদানের আগে পিএসসির সদস্য ছিলাম। আমি যোগদানের আগে ওই লোকের (আবেদ আলী) চাকরি গেছে বলে শুনেছি। ড. জিনাতুন নেসা তাহমিদা বেগম ও এটিএম আহমেদুল হক চৌধুরী যখন পিএসসি চেয়ারম্যান ছিলেন তখন আবেদ পিএসসির চেয়ারম্যানের গাড়ি চালক ছিলেন। ইকরাম আহমদ যখন চেয়ারম্যান ছিলেন তখন আবেদ বরখাস্ত হন। পরে তাকে চাকরিচ্যুতও করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া সৈয়দ আবেদ আলী আমার গাড়ি চালক ছিলেন না। আমি পিএসসির চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদানের আগেই আবেদ আলী চাকরিচ্যুত হন। আমার গাড়িচালক ছিলেন আবু বকর সিদ্দিক নামের একজন। আমি ২০১৬ সালে পিএসসিতে চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করি। তার আগেই আবেদ আলী চাকরিচ্যুত হন। আমি কখনও তাকে দেখিনি।'

সম্প্রতি প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) হাতে পিএসসির সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলীসহ ১৭ ব্যক্তি গ্রেফতারের বিষয়টি নিয়ে এখন সব জায়গায় আলোচনা চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে এ নিয়ে সরব।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকদের বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য সৈয়দ সায়েদুল হক (ব্যারিস্টার সুমন)। সেখানে তিনি পিএসসির সাবেক চেয়ারম্যানদের প্রসঙ্গ তুলেন এবং তারা দায় এড়াতে পারেন না বলে মন্তব্য করেন। এ সময় সুমন দাবি করেন, যারা প্রশ্নপত্র ফাঁসের পরীক্ষা দিয়ে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেছেন তাদেরকে খুঁজে বের করে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়